32 C
Dhaka
Wednesday, April 24, 2024

‘টক শোতে বিরোধী দলের লোক যা খুশি তা-ই বলেন, সরকার বাধা দেয় না, এটাই বাকস্বাধীনতা’

ডেস্ক রিপোর্ট:

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল ব্যাশেলেটের কাছে বাংলাদেশের মানবাধিকারকর্মী ও নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা মানবাধিকার নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশ পুলিশি রাষ্ট্র নয় বলেই তারা বৈঠক করতে পেরেছেন।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সম্প্রীতি বাংলাদেশ আয়োজিত ‘বাঙালির শোকের শ্রাবণ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় আইনমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনারের সঙ্গে মানবাধিকারকর্মীদের সোমবারের বৈঠকের প্রসঙ্গ টেনে আইনমন্ত্রী বলেন,তারা বলেছেন, বাংলাদেশ জনগণের রাষ্ট্র নয়, পুলিশি রাষ্ট্র। আমার প্রশ্ন, বাংলাদেশ যদি পুলিশি রাষ্ট্র হয়ে থাকে, তাহলে এই যে আপনারা বললেন, এটা বলতে কি কেউ আপনাদের বাধা দিয়েছে? দেয়নি। মিটিং করলেন, কেউ বাধা দিয়েছে? সরকার দেয়নি। সেই বক্তব্য খবরের কাগজে ছাপালেন, আমরা কি রাতের বেলা গিয়ে খবরের কাগজকে গলা চিপে ধরেছি যে ছাপানো যাবে না, তা করা হয়নি।

আনিসুল হক বলেন, টক শোতে বিরোধী দলের লোক যা খুশি তা-ই বলেন, কিন্তু সরকার বাধা দেয় না। এটাই সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা, বাকস্বাধীনতা।
১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের পর বাংলাদেশের পরিস্থিতি এমন ছিল না। জাতির পিতাকে হত্যার ব্যাপারে কোনো মামলা, কোনো প্রশ্ন না করার বিধান করা হয়েছিল। এটাই ছিল বাংলাদেশ। এদের চিহ্নিত করতে খুব একটা সময় লাগবে না। আমরা এদের চেহারা চিনি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের জাতির পিতা মানবে না, পতাকা মানবে না, সংবিধান মানবে না, জয় বাংলা মানবে না, হাইকোর্ট লাগবে জয় বাংলা বলতে, বাংলাদেশ বেতার, রেডিও বাংলাদেশ হয়ে যাবে—এটা যতক্ষণ থাকবে বা যারা করে, তারা কি বাংলাদেশে রাজনীতি করার অধিকার রাখে?

একটা কমিশন হওয়া প্রয়োজন জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, রূপরেখা তৈরি করা হয়েছে। তবে এটা প্রতিহিংসা বা প্রতিশোধমূলক নয়। বাংলাদেশ যেখানে পৌঁছে গেছে, সে অবস্থাকে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য। ভবিষ্যৎ প্রজন্ম, বর্তমান প্রজন্মকে বাংলাদেশের ইতিহাস সঠিকভাবে জানাতে হবে।

আনিসুল হক আরও বলেন, আইয়ুব খানের মন্ত্রিসভার অনেককেই জিয়াউর রহমান নিজের মন্ত্রিসভায় বসিয়েছিলেন। তিনি এই হত্যাকাণ্ডগুলো করার পরে দেশ শাসন শুরু করেছিলেন। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে বাংলাদেশকে সম্পূর্ণভাবে ধ্বংস করে দিতে চেয়েছিল। বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হওয়ার পর এদের চিহ্নিত না করলে এই শত্রুদের নিজেদের লালন-পালন করার সুযোগ দেওয়া হয়ে যাবে।

সম্প্রীতি বাংলাদেশের আহ্বায়ক পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভাপতিত্বে সুপ্রিম কোর্টের সাবেক বিচারপতি শামসুদ্দীন চৌধুরী মানিক, রাজনৈতিক ও নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব.) মোহাম্মদ আলী শিকদার এবং সাবেক রাষ্ট্রদূত এ কে এম আতিকুর রহমান আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন।

সর্বশেষ সংবাদ

ময়মনসিংহে ট্রেনের ধাক্কায় নিহত স্বামী-স্ত্রী, আহত শিশু

ময়মনসিংহ নগরীর একটি রেলক্রসিংয়ে ট্রেনের ধাক্কায় রিকশা আরোহী স্বামী-স্ত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় এক শিশু আহত হয়েছে। মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) রাত সাড়ে ১০টার দিকে নগরীর...

ব্যাংক একীভূতকরণ প্রক্রিয়া ঋণখেলাপিদের দায়মুক্তির নতুন মুখোশ: টিআইবি

ব্যাংক একীভূতকরণ প্রক্রিয়া ঋণখেলাপি ও জালিয়াতির জন্য দায়ী মহলকে ‘দায়মুক্তি’ প্রদানের নামান্তর বলে জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। সংস্থাটির ভাষ্য, তড়িঘড়ি ও জোরপূর্বক একীভূতকরণ ব্যাংকিং...

প্রথম ধাপে উপজেলায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ২৬ প্রার্থী নির্বাচিত

উপজেলা নির্বাচনের প্রথম ধাপের ৭ জন চেয়ারম্যান, ৯ জন ভাইস চেয়ারম্যান এবং ১০ জন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। চূড়ান্ত তালিকা এলে...

স্ত্রীর সনদ বাণিজ্য নিয়ে কিছুই জানেন না কারিগরির সাবেক চেয়ারম্যান

সম্প্রতি গণমাধ্যমে আলোচনা এসেছে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের সনদ বাণিজ্যের ঘটনা। প্রতিষ্ঠানটির সদ্য সাবেক চেয়ারম্যান আলী আকবর খান বলেছেন, আমার স্ত্রী সেহেলি পারভীনের সার্টিফিকেট বাণিজ্যের...

হিট স্ট্রোকের ঝুঁকি কমাতে যেসব নির্দেশনা দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

তীব্র তাপপ্রবাহে চরম অস্বস্তিতে রয়েছে সারাদেশের মানুষ। হঠাৎ তাপমাত্রার এমন উর্ধ্বগতিতে সবারই হাঁসফাঁস অবস্থা। অসহ্য তাপমাত্রার ফলে বাড়ছে হিট স্ট্রোক বা সান স্ট্রোকের ঝুঁকি। আবহাওয়া...